আগ্নেয়াস্ত সহ এক যুবককে গ্রেফতার করল পুলিশ

বিনয় আগরওয়াল দক্ষিন দিনাজপুর: তৃণমূল নেতা তথা প্রাক্তন বিধায়কের গাড়ির চালক সুমন দাসকে মঙ্গলবার বালুরঘাট জেলা আদালতে তোলা হয়। ধৃতকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আদালতের কাছ থেকে ১৪ দিনের জন্য পুলিশ রিমান্ড চাওয়া হয়েছে। যদিও তৃণমূল নেতার গাড়ির প্রসঙ্গ এড়িয়ে গেছে পুলিশ প্রশাসন। ধৃতের কাছ থেকে অত্যাধুনিক মানের একটি নাইন এমএম পিস্তল ও ৭ রাউন্ড কার্তুজ উদ্ধার হয়। গোটা ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

জানা গেছে, সুমন দাসের বাবা অনেক দিন আগেই মারা গেছে। বাড়িতে রয়েছে মা। অন্যের বাড়ি কাজ করেন তিনি। দীর্ঘ দিন ধরেই গঙ্গারামপুর বিধানসভার তৃণমূলের প্রাক্তন বিধায়ক সত্যেন্দ্রনাথ রায়ের গাড়ি চালাত সে। গতকাল গভীর রাত নাগাদ বালুরঘাট বাসস্ট্যান্ড এলাকায় মদ্যপ অবস্থায় তৃণমূল নেতার গাড়িটি ধাক্কা মারে রাস্তার স্পিং পোস্টে। এরপরই পুলিশ গাড়িটিকে আটকায়। কথাবার্তায় সন্দেহ হওয়ায় গাড়ির তল্লাশী করতেই একটি লোডেড নাইন এমএম পিস্তল উদ্ধার হয়। রাতেই তাকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে পুলিশ। জিজ্ঞাসাবাদ চলার পর গতকাল রাতে তাকে গ্রেফতার করে। এদিকে প্রাক্তন তৃণমূল বিধায়কের গাড়ি থেকে আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধারের ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়ায়। এদিকে ঘটনার পর থেকে সুমন দাসের বাড়িতে তালা ঝুলছে। নেই বাড়িতে কেউ। ঘটনায় এদিন বালুরঘাট থানায় সাংবাদিক সম্মেলন করেন ডিএসপি হেড কোয়ার্টার ধীমান মিত্র। তৃণমূল নেতার গাড়ি কথা জিজ্ঞাসা করা হলেও সেই প্রসঙ্গ এড়িয়ে যান ডিএসপি।

এবিষয়ে ডিএসপি হেড কোয়ার্টার ধীমান মিত্র জানান, গতকাল আগ্নেয়াস্ত সহ এক যুবককে গ্রেফতার করা হয়েছে। ধৃতের নাম সুমন দাস। বাড়ি বংশীহারী এলাকায়। গতকাল রাতে বালুরঘাট বাসস্ট্যান্ড এলাকায় স্করপিও গাড়িটি ধাক্কা মারে রাস্তার স্পিং পোস্টে। ওই গাড়ির চালকের কাছ থেকেই একটি নাইন এমএম পিস্তল উদ্ধার হয়েছে। চাওয়া হয়েছে পুলিশ রিমান্ডে। গোটা ঘটনা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

Please follow and like us:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *